You Are Browsing 'Author'

By Dulal Sen On 16 Aug, 2018 At 11:34 PM | Categorized As Diner Khobor | With 0 Comments

শিবপুরী (মধ্যপ্রদেশ), ১৬ আগস্ট (হি.স.): পিকনিক করার আনন্দ মুহূর্তের মধ্যে পরিণত হল বিষাদে| মধ্যপ্রদেশের শিবপুরী জেলায়, সুলতানগড় জলপ্রপাতে হড়পা বানে তলিয়ে গেলেন ৮ জন| সৌভাগ্যবশত, ৪৫ জনকে উদ্ধার করতে সক্ষম হয়েছে জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনী| বুধবার স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষ্যে পিকনিকের জন্য জড়ো হয়েছিলেন অন্ততপক্ষে ৬০ জন| তাঁদের মধ্যে ৮ জন সুলতানগড় জলপ্রপাতের সামনেই ছিলেন| ভারী […]

By Dulal Sen On 16 Aug, 2018 At 11:31 PM | Categorized As Nation | With 0 Comments

শ্রীনগর, ১৬ আগস্ট (হি.স.): ভারত-পাকিস্তান আন্তর্জাতিক সীমান্ত বরাবর অবস্থিত ভারতীয় সেনা ছাউনি লক্ষ্য করে এলোপাথাড়ি গুলি চালিয়ে পুনরায় সংঘর্ষবিরতি চুক্তি লঙ্ঘন করল পাকিস্তানি সেনাবাহিনী| সেনাবাহিনীর ঊর্ধ্বতন এক কর্তা জানিয়েছেন, বুধবার গভীর রাতে জম্মু ও কাশ্মীরের কুপওয়ারা জেলায়, নিয়ন্ত্রণ রেখা বরাবর (এলওসি) তাঙ্গধার সেক্টরে এলোপাথাড়ি গুলিবর্ষণ করে পাকিস্তানি সেনাবাহিনী| বৃহস্পতিবার সকাল পাঁচটা পর্যন্ত চলে গুলিবর্ষণ| শত্রুপক্ষকে […]

By Dulal Sen On 16 Aug, 2018 At 11:13 PM | Categorized As Prodhan Khobor | With 0 Comments

নয়াদিল্লি, ১৬ আগস্ট (হি.স.): অটলবিহারী বাজপেয়ীর মৃত্যুতে বৃহস্পতিবার শোকবার্তা দেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেছেন, ভারত তাঁর অমূল্য রত্নকে হারাল। আমি বাকরুদ্ধ হয়ে পড়েছি। তাঁর মৃত্যুতে এক যুগের সূচনা। মনে হচ্ছে নিজের বাবাকে হারালাম। পরে ৬/১ কৃষ্ণ মেনন রোডের বাড়িতে গিয়ে প্রয়াত প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রীর নশ্বর দেহতে মালা দিয়ে শ্রদ্ধা জানান নরেন্দ্র মোদী। এছাড়া শ্রদ্ধা জানান মুখ্যমন্ত্রী নবীন […]

By Dulal Sen On 16 Aug, 2018 At 11:02 PM | Categorized As Diner Khobor | With 0 Comments

কলকাতা, ১৬ আগস্ট (হি.স.) : প্রয়াত প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী অটলবিহারী বাজপেয়ী |বৃহস্পতিবার আজ বিকেল ৫টা ৫ মিনিটে ৯৩ বছর বয়সে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। খবরটা শোনার পর থেকেই মন ভারাক্রান্ত কলকাতার ঘনশ্যাম বেরিওয়ালের। কলকাতায় এলে বন্ধু ঘনশ্যাম বেরিওয়ালের ১৬৭ সেন্ট্রাল অ্যাভিনিউয়ে বাড়িতে উঠতেন বাজপেয়ী | আজ ঘনশ্যাম বেরিওয়ালের কথায় উঠে এল বাজপেয়ীর জীবনের অজানা বহু […]

By Dulal Sen On 16 Aug, 2018 At 11:44 PM | Categorized As Diner Khobor | With 0 Comments

হাইলাকান্দি (অসম), ১৬ আগস্ট, (হি.স.) : জাতীয় নাগরিকপঞ্জি (এনআরসি) নবায়নে এক পরিবারের আবেদনপত্রে অন্য পরিবারের সদস্যদের নাম অন্তর্ভুক্ত হওয়ার ঘটনায় হাইলাকান্দিতে চাঞ্চল্য দেখা দিয়েছে। এনআরসি-র চুড়ান্ত খসড়া প্রকাশের পর এ রকম এক ঘটনা ফাঁস হয়েছে। দেখে গেছে, হাইলাকান্দি জেলার সুদর্শনপুর প্রথম খণ্ডের জনৈক সেলিমউদ্দিন লস্কর জাতীয় নাগরিকপঞ্জির আবেদনপত্রে তাঁর বাবা নিমার আলি লস্করের লিগ্যাসি ব্যবহার […]

By Dulal Sen On 16 Aug, 2018 At 11:54 PM | Categorized As Diner Khobor | With 0 Comments

শান্তিনিকেতন, ১৬ আগস্ট (হি.স.): গুরুদেব রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের প্রতি বাড়তি অনুরাগ ছিল কবি অটলবিহারী বাজপেয়ীর। গুরুদেব রবীন্দ্রনাথের কবিতা তাকে এতটাই আকর্ষন করত যে কবির “ভারত তীর্থ” কবিতা হিন্দি অনুবাদ চেয়েছিলেন প্রয়াত প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী অটলবিহারী বাজপেয়ী | বাজপেয়ীর সহপাঠী তথা বিশ্বভারতীর হিন্দি বিভাগের অধ্যাপক রামসিং তোমারকে এই অনুরোধ করেছিলেন তিনি | বাংলা বিভাগের তৎকালীন বিভাগীয় প্রধান রামবহাল […]

By Dulal Sen On 16 Aug, 2018 At 11:53 PM | Categorized As Main Slideshow | With 0 Comments

নয়াদিল্লি, ১৬ আগস্ট (হি.স.) : প্রয়াত প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী অটল বিহারী বাজপেয়ী | বৃহস্পতিবার নয়াদিল্লির এইএমএস হাসপাতালে ৯৩ বছর বয়সে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করলেন অটলবিহারী বাজপেয়ী৷ শোকস্তব্ধ সারা দেশ | তার মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন রাষ্ট্রপতি, উপ-রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, বিজেপি সভাপতি, কংগ্রেস সভাপতি, বিভিন্ন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীরা, প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি ও উপ-রাষ্ট্রপতি। এছাড়াও শোকপ্রকাশ করেছে দেশের রাজনৈতিক মহল। শুক্রবার […]

By Dulal Sen On 16 Aug, 2018 At 12:09 AM | Categorized As Nation | With 0 Comments

গুয়াহাটি, ১৫ আগস্ট ২০১৭, (হি.স) : কোনও প্রকৃত ভারতীয় নাগরিক জাতীয় নাগরিকপঞ্জি (এনআরসি)  থেকে বাদ  পড়বেন  না।  এনআরসি-র সম্পূর্ণ খসড়া থেকে যাঁদের নাম ছুটেছে আজ ফেরতাঁদের  শংকিত, ভীত, উদ্বিগ্ন না  হওয়ার  অভয়বাণী  শুনিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সনোয়াল। আজ বুধবার স্থানীয় খানাপাড়ায় পশু  চিকিৎসা মহাবিদ্যালয়  ময়দানে  রাজ্য সরকার কর্তৃক আয়োজিতস্বাধীনতা দিবসের মূল অনু্ষ্ঠানে প্রধান বক্তা হিসেবে রাজ্যবাসীর উদ্দেশে ভাষণ দিচ্ছিলেন  মুখ্যমন্ত্রী সনোয়াল। ভাষণের আগে তিনি তেরঙ্গা জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেছেন। গ্রহণ করেছেন অসমপুলিশ,  স্কাউট  অ্যান্ড  গাইডস, এনসিসি, এসডিআরএফ প্রভৃতি সংস্থার কুচকাওয়াজ। ভাষণের শুরুতে রাজ্যবাসীকে স্বাধীনতা দিবসের শুভেচ্ছা জানানোর পাশাপাশি জাতির পিতা মহাত্মা গান্ধী এবং বীর শহিদদের স্মরণ করেছেন মুখ্যমন্ত্ৰী। স্বাধীনতা সংগ্রামের অসমের মহান সেনানিমণিরাম দেওয়ান, কুশল কোঁওর, পিয়ালি ফুকন, মুকুন্দ কাকতি, কনকলতা বরুয়া, ভোগেশ্বরী ফুকননি-সহ বিভিন্ন বীরকে স্মরণ করে তাঁদের প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। শ্রদ্ধা জানানদেশের নিরাপত্তার সঙ্গে জড়িত সর্বস্তরের বাহিনীকে। তাছাড়া দেশের ভূখণ্ড তথা সার্বভৌমত্ব রক্ষায় যে সব জওয়ান আত্মবলিদান দিয়েছেন তাঁদের প্রতিও আন্তরিক উষ্ণ শ্রদ্ধাঞ্জলি জ্ঞাপন করেনতিনি। এ প্রসঙ্গে তিনি ভূপেন হাজরিকার একটি গানের কয়েকটি পংক্তিও শুনিয়েছেন। এর পরই মুখ্যমন্ত্রী বলেন, দেশের সর্বোচ্চ আদালতের তত্ত্বাবধানে ভারতের রেজিস্ট্রার জেনারেল অব ইন্ডিয়া,কেন্দ্রীয় ও রাজ্য সরকারের যৌথ সহযোগিতায় ঐতিহাসিক দলিল এনআরসি-র যে সম্পূ্র্ণ খসড়া প্রকাশ হয়েছে আজ স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠানে ফের সে সম্পর্কে বলেছেন মুখ্যমন্ত্রী। তাছাড়া বরাক-ব্রহ্মপুত্র, পাহাড়-সমতলের জনসাধারণ যেভাবে সহায়তা করেছেন এজন্য তিনি সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতাও ব্যক্ত করেছেন। এছাড়া এনআরসি তৈরি করতে যে ৫৫ হাজার আধিকারিক-কর্মচারী, ৭০হাজার পুলিশকর্মীর নিষ্ঠা ও দায়বদ্ধতার কথাও শুনিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ২০১৬ সালে রাজ্যের ক্ষমতা গ্রহণের পর অসমকে বিদেশিমুক্ত করার যে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন এ পরিপ্রেক্ষিতে এনআরসি হবে এক গুরুত্বপূর্ণ রক্ষাকবচ। দৃঢ়তার সঙ্গে সনোয়ালবলেন, খসড়া-ছুটরা ভয় পাবেন না, কোনও প্রকৃত ভারতীয়ের নাগরিকত্ব কেড়ে নেওয়া হবে না। যা প্রকাশ হয়েছে তা চূড়ান্ত নয়, খসড়া। কোনও প্রকৃত ভারতীয় নাগরিকের নাম যাতে চূড়ান্ত তালিকাথেকে বাদ না পড়ে তা সুনিশ্চিত করতে অসম সরকার সংকল্পবদ্ধ। তবে জানান, নাগরিকপঞ্জিতে যাতে কোনও বিদেশির নাম অন্তর্ভুক্ত হতে না পড়ে সে দিকেও কড়া নজর রাখা হচ্ছে। মুখ্যমন্ত্রী বলেন, রাজ্যের ক্ষমতা গ্রহণের সময় তাঁর উপলব্ধি হয়েছিল এ সরকারের প্রতি জনসাধারণের আস্থা, বিশ্বাস ও প্রত্যাশা খুব বেশি। তাই জনতার আশা-প্রত্যাশা পূরণ করতে সর্বতোপ্রকারেপ্রচেষ্টা চালানো হচ্ছে। বলেন, তাঁর সরকারের অন্যতম লক্ষ অসমবাসীর স্বাভিমান ও মর্যাদা অক্ষুণ্ণ রক্ষা। রাজ্যের বরাক-ব্রহ্মপুত্র, পাহাড়-সমতলে বসবাসকারী সব ধর্মাবলম্বী, ভাষা-ভাষী মানুষেরমধ্যে ঐক্য, সম্প্রীতি ও সমন্বয় হল তাঁর সরকারের মূল চালিকাশক্তি। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সব-কা সাথ সব-কা বিকাশ-এর আদর্শ ও প্রমূল্যবোধকে অনুপ্রেরণার মূলমন্ত্র হিসেবে গ্রহণ করেসর্বশ্রেণির জনসাধারণের সম-উন্নয়ন ঘটানোর সংকল্প নিয়ে কাজে ঝাঁপিয়ছেন। এ প্রসঙ্গে তাঁর সরকারের কাজকর্মের খতিয়ানও তুলে ধরেন মুখ্যমন্ত্রী। বলেন, জনতার আস্থা নিয়েই তাঁর সরকার এগিয়ে চলেছে। অসমকে একটি দুৰ্নীতিমুক্ত, সন্ত্ৰাসমুক্ত, প্ৰদূষণ ও বিদেশিমুক্ত রাজ্যহিসেবে গড়ে তুলতে তাঁর সরকার বদ্ধপরিকর। অন্যান্য দিনের মতো আজও তিনি জোরের সঙ্গে বলেন, ভ্রষ্টাচার-দুৰ্নীতির ব্যাপারে এখনও তিনি শূন্য সহনশীল। দুর্নীতির বিরুদ্ধে প্রথম থেকে যে কড়াঅবস্থান নিয়েছিলেন তা আগামীতেও থাকবে। এ প্রসঙ্গে তিনি রাজ্যের সর্বকালের সর্ববৃহৎ এপিএসসি কেলেংকারির বিষয় তুলেন। বলেন, ইতিমধ্যে এপিএসসি-র চেয়ারম্যান (তদানীন্তন) ও সদস্য-সহ৫২ জন গ্যাজেটেড অফিসারকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বিজেপি জোট সরকারের আমলে গত দুবছরে দুর্নীতির হার বহু কমেছে। রাজ্যের প্রশাসন ব্যবস্থাকে স্বচ্ছ, সংবেদনশীল, দায়বদ্ধ এবংদুর্নীতিমুক্ত করে তুলতে তাঁর সরকার একাধিক পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে বলেও ভাষণে বলেছেন মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সনোয়াল। সরকারের কাজকর্মের খতিয়ান দিতে গিয়ে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ভারত-বাংলাদেশ সীমান্ত সিল করতে যথেষ্ট গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে। শীঘ্রই অসমের সঙ্গে সাঁটা সীমান্ত সিলের কাজ সম্পূৰ্ণ হয়ে যাবে। বলেন,অসম চুক্তির বিভিন্ন দফা রূপায়ণের কাজ চলছে। সরকার যে নতুন ভূমিনীতি গ্রহণ করছে তা খিলঞ্জিয়া (ভূমিপুত্র)-দের মাটি-ভিটে সুরক্ষিত থাকবে। রাজ্যের আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতির যথেষ্ট উন্নতহয়েছে। গত মে মাসে আলফার গুলিতে নিহত পুলিশ অফিসার ভাস্কর কলিতার প্রতিও গভীর শ্ৰদ্ধাঞ্জলি জানান মুখ্যমন্ত্ৰী। মুখ্যমন্ত্রী এছাড়া বলেন, রাজ্যে ১০ কোটি গাছের চারা রোপণের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। ইতিমধ্যে বিভিন্ন স্থানে রোপণ হয়েছে চার কোটি ৫০ লক্ষ গাছের চারা। জাতীয় অভয়ারণ্য, সংরক্ষিতবনাঞ্চলের ভূমি সংরক্ষণের ব্যবস্থা করা, গন্ডারের চোরাশিকার উল্লেখযোগ্যভাবে হ্ৰাস পেয়েছে বলে জানিয়ে বলেন, কাজিরঙার বন সুরক্ষাকৰ্মীদের প্ৰদান করা হয়েছে অত্যাধুনিক আগ্নেয়াস্ত্র। হিসাবদিয়ে বলেন, গত দু বছরে ১৭০ জন চোরাশিকারিকে গ্ৰেফতার করা হয়েছে। চোরাশিকারিদের বিচার প্ৰক্ৰিয়া ত্বরান্বিত করতে ১০টি ফাস্টট্র্যাক কোর্ট স্থাপন করা হয়েছে। তাছাড়া কাজিরঙায় ৩৩টিহাইল্যান্ড স্থাপন হয়েছে বলেও জানান মুখ্যমন্ত্রী। ৭২-তম স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠানে মুখ্যমন্ত্রী আরও বলেন, অ্যাক্ট-ইস্ট পলিসির ফলে অসম-সহ উত্তর-পূর্বাঞ্চলে এক নতুন গতি এসেছে। বিভিন্ন ক্ষেত্রের বিশিষ্ট শিল্পপতি বিনিয়োগ করছেন রাজ্যে।জানান, গুয়াহাটি বিমানবন্দরের নতুন টাৰ্মিনাল নিৰ্মাণকাৰ্য শুরু হয়েছে। গুয়াহাটিতে ভুটান-বাংলাদেশের বাণিজ্যিক দূতাবাস স্থাপন হয়েছে। রাজ্যের ২৫ লক্ষ গ্ৰামীণ পরিবারের বাড়িতে পাকাশৌচালয় নিৰ্মাণ করা হয়েছে। পূৰ্ববর্তী সরকারের আমলে ইন্দিরা আবাসের অসম্পূৰ্ণ তিন লক্ষ গৃহ সম্পুৰ্ণ হয়েছে। প্ৰধানমন্ত্ৰী আবাস যোজনার এক লক্ষ ৯৮ হাজার গৃহ নিৰ্মাণের কাজ চলছে। এছাড়ারাজ্যের সব গ্রামে বিদ্যুতায়নের ব্যবস্থা হচ্ছে। সৌভাগ্য প্রকল্পের অধীনে প্ৰতিঘরে বিনামূল্যের বিদ্যুৎ সংযোগের কাজ চলছে। বলেন, আগামী দু বছরের সময়সীমায় রাজ্যের ৩২.৫২ লক্ষ পরিবারকেকৰ্মসংস্থাপনের আওতায় নিয়ে আসা হবে। ১৯ লক্ষ পরিবারকে বিনামূল্যের রান্নার গ্যাস সরবরাহ করা হয়েছে। গ্ৰামাঞ্চলে ৯,৮৪২ কিলোমিটার রাস্তা নিৰ্মাণে অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। ১,০০০টিকাঠের সেতুকে পাকা করার লক্ষ হাতে নেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে ২০০টি কাঠের সেতুকে পাকা করার কাজ শুরু হয়ে হয়েছে। অন্যদিকে রাজ্যে জাতীয় সড়কের বর্তমান দৈর্ঘ্য ৩,৮০০ থেকে ৭,০০০কিলোমিটার সম্প্ৰসারণ করা হয়েছে। এছাড়া রাজ্যের ১,৮৪৪ কিলোমিটার পূর্ত সড়ককে জাতীয় সড়কে উন্নীত করা হবে বলে কেন্দ্রীয় সরকার ঘোষণা করেছে। ব্ৰহ্মপুত্ৰের ওপর বগিবিল-কলিয়াভোমরায় দুটি সেতু তৈরির কাজও চলছে। মাজুলির যাতায়াত ব্যবস্থা সুষ্ঠু করতে চারটি নতুন ফেরিসেবা চালু করা হয়েছে। ব্ৰহ্মপুত্ৰের বুকে একটি নতুন রো-রো জাহাজ পরিষেবাও আরম্ভহয়েছে। মুখ্যমন্ত্রী তাঁর ভাষণে জানান, ৩০ হাজার কোটি টাকা ব্যয়সাপেক্ষে কৃষকদের আয় দুগুণ বৃদ্ধির পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। প্ৰতিটি গ্রামের কৃষক-গোষ্ঠীকে ভরতুকির ট্র্যাক্টর প্রদান করা হয়েছে।রাজ্যে ১৪ লক্ষ সয়েল হেল্থ কাৰ্ড বিতরণ করা হয়েছে। মাছের উত্পাোদন গত বছরের তুলনায় ২০ হাজার মেট্ৰিকটন বেড়েছে। ভাষণে তিনি ২০ অনূর্ধ্ব বিশ্ব অ্যাথলেটিক্সে সোনার মেয়ে হিমা দাসকে অসমিয়া নারীর ত্যাগ, কষ্ট, সহিষ্ণুতার প্ৰতীক বলে উল্লেখ করেছেন। তাছাড়া অংকুশিতা বোড়োর বিশ্ব যুব-মহিলা বক্সিঙেস্বৰ্ণপদক, চলচ্চিত্ৰ নিৰ্মাতা রিমা দাস অসমিয়া নারীর সৃষ্টিশীলতার নিদৰ্শন তুলে ধরেছেন বলে মন্তব্য করেন। নারী সমাজকে আরও সবল করতে কনকলতা মহিলা সবলীকরণ প্রকল্প গ্ৰহণেরকথাবলেছেন। জানান, রাজ্যের এক লক্ষ ২৬ হাজার আত্মসহায়ক গোষ্ঠীকে ২৫ হাজার টাকা করে প্ৰদানের ব্যবস্থা করা হয়েছে। মুখ্যমন্ত্রী বলেন, প্ৰাথমিক থেকে উচ্চ মাধ্যমিক স্তরের শিক্ষাৰ্থীদের তিন কোটি ৩৮ লক্ষ বিনামূল্যের পাঠ্যবই বিলি করা হয়েছে। তাছাড়া ৩৭ লক্ষ ৩৪ হাজার ছাত্ৰছাত্ৰীকে দেওয়া হয়েছে বিনামূল্যেরস্কুল ইউনিফৰ্ম। এক লক্ষ যুবক-যুবতীকে আৰ্থিক সাহায্য প্ৰদানের ব্যবস্থা, দেড় লক্ষ যুবক-যুবতীর কর্মদক্ষতা বৃদ্ধির ব্যবস্থা গ্ৰহণ করার পাশাপাশি ৫৯ হাজার পরিবারকে আৰ্থিক সাহায্য দেওয়াহয়েছে। তিনি জানান, অসমে ১৯টি ক্যানসার কেয়ার হাসপাতাল নিৰ্মাণের কাজ আরম্ভ হয়েছে। বন্যা ও নদীভাঙন অসমের বহু পুরনো জ্বলন্ত সমস্যা। এই সমস্যা সমাধানের প্রক্রিয়া চলছে। সাম্প্রতিকবন্যায় নিহতদের নিকট আত্মীয়ের হাতে চার লক্ষ টাকা করে এককালীন সাহায্যের ব্যবস্থা করা হয়েছে। সাংবাদিকদের কল্যাণেও তাঁর সরকার দায়বদ্ধ বলে জানিয়ে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ইতিমধ্যে ৩১ জন সাংবাদিকের পরিবারকে পাঁছ লক্ষ টাকা করে এককালীন সাহায্য দেওয়া হয়েছে। তাছাড়া অবসরপ্ৰাপ্ত২০ জন সাংবাদিককে পেনশন প্রদান করা ছাড়াও আরও ২০ জন সাংবাদিককে মিডিয়া ফেলোশিপ প্ৰদান করা হয়েছে। অম্বুবাচি মেলাকে আন্তৰ্জাতিক স্তরে নিয়ে যাওয়ার প্ৰয়াস তাঁর সরকার করছে। ৫০০টি খেলার মাঠকে উন্নীতকরণের কাজ হাতে নেওয়া হয়েছে। মুখ্যমন্ত্রী বলেন, রাজ্য চলচ্চিত্ৰ পুরস্কার ফের প্রবর্তনকরা হয়েছে। রাজ্যের চলচ্চিত্ৰ শিল্পের জন্য নীতি প্ৰস্তুতের পরিকল্পনা চলছে বলে স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠানে জানান মুখ্যমন্ত্ৰী। চা শ্ৰমিকদের জন্য গৃহীত বহু পদক্ষেপের কথা জানান মুখ্যমন্ত্রী। জানান, সাত লক্ষের বেশি শ্ৰমিককে চা বাগান ধন পুরস্কার মেলার মাধ্যমে ২,৫০০ টাকা করে তাঁদের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে দেওয়াহয়েছে। চা বাগানের জন্য ৮০টি মোবাইল মেডিক্যাল ইউনিট চালু করা হয়েছে। ১০০টি বাগানে একটি করে হাইস্কুল নিৰ্মাণ, চা বাগানে প্ল্যান্টেশন লেবার অ্যাক্ট বাস্তবায়িত করা, চা বাগানের গর্ভবতীমহিলাদের পরিপুষ্টির জন্য ১২ হাজার টাকা করে এককালীন সাহায্য, ২০ হাজার লাইন সৰ্দারকে স্মাৰ্টফোন প্ৰদান, চা বাগানের রাস্তায় প্ল্যাভার্স ব্লক বসানোর পদক্ষেপ সরকার গ্রহণ করেছে বলেজানান মুখ্যমন্ত্রী। এছাড়া রাজ্যের তফশিলি জাতি, তফশিলি জনজাতি এবং অন্যান্য পশ্চাদপদ শ্রেণির আর্থ-সামাজিক এবং শিক্ষাক্ষেত্রের বিকাশে গত বছর এক লক্ষ ২৩ হাজার ছাত্রছাত্রীকে প্রি-মেট্রিক এবং পোস্ট-মেট্রিক স্কলারশিপ দেওয়া হয়েছে বলে জানান তিনি। রাজ্যের সর্বাঙ্গীন বিকাশে তিনটি পাৰ্বত্য জেলা ছাড়াও বিটিএডি এবং বরাক উপত্যকার উন্নয়নে সরকার গুরুত্ব আরোপ করে এগিয়ে চলেছে।এছাড়া গুয়াহাটি মহানগরের উন্নয়নেও একগুচ্ছ পদক্ষেপের কথা বলেছেন মুখ্যমন্ত্রী। জানান, শহরের উন্নয়নে ‘অমরূত’-এর বলে গুয়াহাটি, শিলচর, নগাঁও এবং ডিব্রুগড়ে ১৬টি প্রকল্প রূপায়ণকরা হয়েছে। রাজ্যের ধর্মীয় ও ভাষিক সংখ্যালঘুদের আর্থ-সামাজিক সবলীকরণের জন্য সংখ্যালঘু অধ্যুষিত ২০টি জেলায় ২১টি মডেল আবাসিক বিদ্যালয় নির্মাণের পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। সেভাবে দুই লক্ষ৫০ হাজারের বেশি সংখ্যালঘু ছাত্রছাত্রীকে গত বছর প্রি-মেট্রিক এবং পোস্ট-মেট্রিক স্কলারশিপ দেওয়ার পাশাপাশি সংখ্যালঘু অধ্যুষিত এলাকায় নয়টি মহিলা কলেজ স্থাপনের কথাও সরকার ঘোষণাকরেছে বলে জানান মুখ্যমন্ত্রী। তাছাড়া, অন্ধবিশ্বাস আর কুসংস্কার দূর করতে ‘মানুষ মানুষের জন্য’ শীর্ষক এক প্রকল্প হাতে নেওয়া হয়েছে বলে জানান মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সনোয়াল।

By Dulal Sen On 16 Aug, 2018 At 12:29 AM | Categorized As Diner Khobor | With 0 Comments

শ্রীরামপুর(হুগলি), ১৫ আগস্ট (হি.স.) : অপারেশন থিয়েটারের মধ্যে কর্তব্যরত নার্সকে  শ্লীলতাহানি করার  অভিযোগ উঠল  চিকিৎসকের বিরুদ্ধে। শ্রীরামপুর ওয়ালশ হাসপাতালের  এই ঘটনায়  বিক্ষুব্ধ নার্সেরা। পুলিশ জানিয়েছে, অভিযোগকারিণী নার্সের অভিযোগ, অপারেশন থিয়েটারের মধ্যে শ্লীলতাহানি করেন চিকিৎসক অরূপ লাহা। আগেও দু’বার ওই  চিকিৎসক তাঁর গায়ে হাত দিয়েছিলেন বলে দাবিতাঁর। তৃতীয় বার ফের  একই ঘটনা ঘটায় ওই নার্স  হাসপাতালের  সুপার কমলকিশোর সিংহের  কাছে লিখিত অভিযোগ জানান। তাঁর দাবি, সেই ঘটনার কোন তদন্তই  করেননি  হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। কর্তৃপক্ষ কিছু না জানালে, হাসপাতাল সুপারকে এই বিষয় নিয়ে ডেপুটেশান দিতে চান নার্সরা। সুপার জানান, আজ  মঙ্গলবার  বেলা বারোটায় তাঁর কাছে আসতে। দেড়টার সময়ে সুপার এসে  পৌঁছলেবিক্ষোভে ফেটে পড়েন হাসপাতালের  নার্সিং স্টাফরা। সুপার তাঁদের জানান, ঘটনার তদন্ত হয়ে সিএমওএইচ  অফিসে জমা পড়েছে। যা জানার সেখান থেকে  জেনে নিতে হবে। নার্সদের অভিযোগ, অভিযুক্ত চিকিৎসক অরূপ লাহা জানিয়েছেন, শ্লীলতাহানির শিকার হওয়া ওই নার্স ওটিতে ডিউটি করলে তিনি নাকি অস্ত্রোপচার করবেন না। এই কথা শুনেই চিকিৎসককে ক্ষমাচাইতে হবে, এই দাবিতে সরব হন নার্সেরা। অরূপ  লাহা  অবশ্য অভিযোগ অস্বীকার করে জানিয়েছেন, পাঁচ বছর এই হাসপাতালে চিকিৎসা করছেন তিনি। এখন  উদ্দেশ্য প্রণোদিত  ভাবে এই অভিযোগকরা হচ্ছে। জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক ভূষন চক্রবর্তী বলেন,  ঘটনার তদন্তে  একটি  কমিটি গঠন করা হবে।

By Dulal Sen On 16 Aug, 2018 At 12:14 AM | Categorized As World | With 0 Comments

ঢাকা, ১৫ আগস্ট (হি.স.) : সারা দেশজুড়ে মঙ্গলবার বাংলাদেশে জাতীয় শোকদিবস পালন করা হল। ১৯৭৫ সালের ১৫  অগাস্ট বিদ্রোহী সৈনিকদের গুলিতে সপরিবারে নিহত হন বাংলাদেশেরস্বাধীনতা সংগ্রামের নেতা তথা তৎকালীন রাষ্ট্রপতি মুজিবর রহমান। এই দিনটি জাতীয় শোক দিবস হিসাবে পালন করছে বাংলাদেশ। দেশের সর্বত্র জাতীয় পতাকা  অর্ধনমিত  রাখা হয়েছে এদিনসকালে রাষ্ট্রপ্রধান আবদুল হামিদ  ও সরকারের প্রধান শেখ হাসিনা ধানমন্ডির বঙ্গবন্ধু  স্মৃতি জাদুঘর  প্রাঙ্গনে মুজিবর রহমানের প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন। ৪৩ বছর আগে ১৫ অগাস্ট রাতে ঘাতকরা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান, তাঁর স্ত্রী বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিব, তিন ছেলে শেখ কামাল, শেখ জামাল, শেখ রাসেল, শেখ কামালের স্ত্রী সুলতানাকামাল, শেখ জামালের স্ত্রী রোজি জামাল, বঙ্গবন্ধুর ছোট ভাই শেখ নাসেরকে হত্যা করে। সেই রাতে মুজিবের বোনের স্বামী আবদুর রব  সেরনিয়াবাত,  তাঁর ছেলে আরিফ,  মেয়ে  বেবি,  মুজিবের ভাগ্নেশেখ ফজলুল হক মণি, তাঁর স্ত্রী আরজু মণি নিহত হন। মুজিবের ধানমন্ডির বাড়িতে নিরাপত্তার দায়িত্বে ছিলেন পুলিশের বিশেষ শাখার সাব ইন্সপেক্টর সিদ্দিকুর রহমান ও কর্নেল জানিল। তাঁরাও রেহাই পাননি। বঙ্গবন্ধুর দুই মেয়ে শেখ হাসিনা ও শেখরেহানা দেশের বাইরে থাকায় প্রাণে বেঁচে যান। বঙ্গবন্ধুর মৃত্যুদিনে জাতীয় শোক দিবস পালন করা নিয়েও বাংলাদেশে বিতর্ক হয়েছে। তাঁর মৃত্যুর পরে ২০ বছর দিনটিকে জাতীয় শোক দিবস হিসাবেপালন করা হয়নি। আওয়ামি লিগ ক্ষমতায় এসে  প্রথমবার  ১৯৯৬ সালে ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস পালন করে। ২০০১ সালে বিএনপি ক্ষমতায় এসে  শোক দিবস বাতিল  করে  দেয়।  হাইকোর্টেররায়ে ২০০৮ সাল থেকে দিনটিকে জাতীয় শোক দিবস হিসাবে পালন করা হচ্ছে। মুজিব হত্যায় জড়িত পাঁচজনের মৃত্যুদণ্ড এখনও পর্যন্ত কার্যকর হয়েছে। দণ্ডিত ছজন এখনও বিদেশে পালিয়ে আছেন। বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে জাতীয় শোকদিবস ও পবিত্র ইদ উপলক্ষেইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে মোট ১৩ দিনের ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে। এর মধ্যে প্রশাসনিক কার্যক্রম ১১ দিন এবং অ্যাকাডেমিক কার্যক্রম ১৩ দিন বন্ধ থাকবে বলে জানিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়েররেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) এস এম আব্দুল লতিফ। বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যালেন্ডারের ছুটির তালিকা  অনুযায়ী, আগামী ১৪  আগস্ট  হতে  ২৭ আগস্ট পর্যন্ত ক্লাসসমূহ এবং ১৫ আগস্ট হতে ২৬ আগস্ট পর্যন্তঅফিসসমূহ ছুটি থাকবে। ছুটি শেষে ২৭ আগস্ট  হতে  অফিসসমূহ  এবং ২৮ আগস্ট থেকে ক্লাস ও পরীক্ষাসমূহ যথারীতি চলবে।

Powered By JAGARAN – The first daily of Tripura ::: Design & Maintained By CIS SOLUTION