বন্দুক ধরলেই খতম করা হবে, উপত্যকায় জঙ্গিদের চরম হুঁশিয়ারি কানওয়ালজিত সিং ধিলোনের
On 19 Feb, 2019 At 08:40 PM | Categorized As Nation | With 0 Comments
36 Shares

শ্রীনগর, ১৯ ফেব্রুয়ারি (হি.স.): বন্দুক ধরলেই নিকেশ করে দেওয়া হবে। পুলওয়ামায় জঙ্গি হামলার পর মঙ্গলবার যৌথ সাংবাদিক সম্মেলনে জঙ্গিদের বিরুদ্ধে এমনই হুঁশিয়ারি দিলেন লেফটন্যান্ট জেনারেল কানওয়ালজিত সিং ধিলোন। পাশাপাশি জঙ্গিদের জীবনের মূল স্রোতে ফিরিয়ে আসার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, ‘মায়েদের উচিত ছেলেদেরকে বোঝানো। প্রশাসন একাধিক প্রকল্প গ্রহণ করেছে। তাতে যুক্ত হয় স্বাভাবিক জীবনযাপন করা উচিত।’ এদিন সেনাবাহিনী, রাজ্য পুলিশ, সিআরপিএফ-এর যৌথ সাংবাদিক সম্মেলনে বক্তব্য রাখতে গিয়ে সেনাবাহিনীর চিনার কোর্প কম্যান্ডার লেফটন্যান্ট জেনারেল কানওয়ালজিত সিং ধিলোন জঙ্গিদের চরম হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, ‘আত্মসমর্পণ করুন, নয়তো বন্দুক হাতে নিলেই নিকেশ করে দেওয়া হবে। ১৪ ফেব্রুয়ারির পর থেকে শীর্ষ জইশ-ই-মহম্মদ কম্যান্ডারের খোঁজে তল্লাশি চলছিল। পুলওয়ামার হামলার ১০০ ঘন্টার মধ্যে জইশ-ই-মহম্মদ শীর্ষ কম্যান্ডারদের উপত্যকা থেকে নিকেশ করে দেওয়া হয়েছে।’

১৪ ফেব্রুয়ারি পুলওয়ামায় সিআরপিএফ কনভয় জঙ্গি হামলায় পাকিস্তানের হাত রয়েছে এমন দাবি করে কানওয়ালজিত সিং ধিলোন বলেন, ‘আইএসআই এবং পাকিস্তান সেনার মদতে সিআরপিএফ কনভয়ে হামলা চালিয়েছিল জইশ জঙ্গিরা। জইশ-ই-মহম্মদের শীর্ষ কম্যান্ডারদের প্রায় বেশির ভাগই পাকিস্তানের। এই হামলার কার্যকর করার জন্য সমন্বয়, নিয়ন্ত্রণ করা সমস্ত কাজই এরা করেছে।’ পুলওয়ামায় সিআরপিএফের কনভয়ে জঙ্গি হামলার তদন্ত প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে তিনি বলেন, ‘তদন্ত খুবই প্রাথমিক পর্যায় রয়েছে। এই বিষয়ে বিস্তরিত এখনই কিছু বলব না। হামলায় কি ধরণের বিস্ফোরক ব্যবহার করা হয়েছিল তা তদন্ত উঠে এসেছে। কিন্তু এখনই জনসমক্ষে তা আনা হবে না। আমাদের সন্ত্রাসদমন নীতি খুবই স্পষ্ট। নতুন ধরণের জঙ্গি মডিউলের বিরুদ্ধে তৈরি আমরা।’উপত্যকার সাধারণ মানুষের উদ্দেশ্যে কানওয়ালজিত সিং ধিলোনের পরামর্শ, কাশ্মীরি সমাজের মায়েরা খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে চলেছে। সেই সকল মায়েদের কাছে আমার অনুরোধ তাদের ছেলেদের জঙ্গি সংগঠন ছেড়ে দিয়ে সমাজের মূল স্রোতে ফিরে আসার পরামর্শ দিন।

এদিনের সাংবাদিক সম্মেলনে সিআরপিএফ উপস্থিত ছিলেন আইজি (অপরেশন) জুলফিকর হুসেন, রাজ্য পুলিশেরর আইজি এস পি পানি।প্রসঙ্গত, রবিবার রাত থেকে শুরু হওয়া টানা ১৭ ঘন্টার রুদ্ধশ্বাস সংঘর্ষের পর পুলওয়ামার মাস্টারমাইন্ড সহ তিন জঙ্গিকে খতম করেছিল নিরাপত্তা বাহিনী। শহিদ এক মেজর সহ ৫ জওয়ান। সেনবাহিনী, সেন্ট্রাল রিজার্ভ পুলিশ ফোর্স (সিআরপিএফ) এবং জম্মু ও কাশ্মীর পুলিশের স্পেশ্যাল অপারেশন গ্রুপ (এসওজি) দক্ষিণ কাশ্মীরের পুলওয়ামা জেলার পিঙ্গলান এলাকায় অভিযান চালিয়ে খতম করল জইশ-ই-মহম্মদ (জইএম) কম্যান্ডার কামরান| এনকাউন্টারে মৃত্যু হয়েছে আরও একজন জইশ-ই-মহম্মদ জঙ্গিরও|

36 Shares

Leave a comment


Powered By JAGARAN – The first daily of Tripura ::: Design & Maintained By CIS SOLUTION