রাফাল নিয়ে সরব কংগ্রেস, হই হট্টগোলের জেরে মুলতুবি লোকসভা
On 12 Dec, 2018 At 08:27 PM | Categorized As Nation | With 0 Comments
2 Shares
নয়াদিল্লি, ১২ ডিসেম্বর (হি.স.) : রাফাল ইস্যুতে উত্তাল সংসদ। বিরোধীদের হই হট্টগোলের জেরে মুলতুবি হয়ে গেল অধিবেশন।
বুধবার লোকসভার শীতকালীন অধিবেশনের দ্বিতীয় দিনে রাফাল দুর্নীতির তদন্তে যৌথ সংসদীয় কমিটির দাবি করতে থাকে কংগ্রেস সংসাদ সুস্মিতা দেব, সুনীল ঝাখর এবং রাজীব সাটাভ। সংসদের ওয়েলে নেমে চিৎকার করে স্লোগান দিতে থাকেন তারা। কংগ্রেসের এই দাবিকে সমর্থন জানায় তেলেগু দেশম পার্টি (টিডিপি)। বিরোধীদের হই হট্টগোলের জেরে লোকসভা মুলতুবি করে দিতে বাধ্য হন অধ্যক্ষা সুমিত্রা মহাজন।
অন্যদিকে, অযোধ্যায় রাম মন্দিরের নির্মাণের দাবিতে সরব হন বিজেপির জোট সঙ্গী শিবসেনা। গোলায় প্লেকার্ড ঝুলিয়ে শিবসেনা সংসদেরা স্লোগান দিতে থাকেন, ‘সব হিন্দুদের এটাই ইচ্ছা আগে মন্দির পরে সরকার।’ দুপুর ১২টা নাগাদ যখন অধিবেশন পুনরায় শুরু হয় তখন লোকসভার ওয়েলে নেমে একই দাবিতে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন শিবসেনার সংসদেরা। অন্যদিকে অন্ধ্রপ্রদেশের বিশেষ মর্যাদার দাবিতে সরব হয় তেলেগু দেশম পার্টি (টিডিপি) সাংসদেরা। তারাও ওয়েলে নেমে স্লোগান দিতে থাকে। পরে বাধ্য হয়েই অধিবেশন মুলতুবি করে দেন সুমিত্রা মহাজন।
এদিন অধিবেশনের শুরুতে প্রয়াত রাজনীতিবিদদের প্রতি শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করা হয়। প্রয়াত এন ডি তিওয়ারি, গুরুদাস কামাত, মদনলাল খুরানা, সি কে জাফর শরিফদের প্রতি শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করা হয়। মুলতুবি হওয়ার আগে বাধ নিরাপত্তা বিল ২০১৮ লোকসভা পেশ করা হয়। এই বিলের বিরোধিতা করে বিজু জনতা দল নেতা বি মাহতাব। যদিও বিজু জনতা দলের এই দাবি খারিজ করে দেয় জল সম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রী অর্জুন রাম মেঘাবল। তিনি বলেন পশ্চিমবঙ্গ এবং অন্ধ্রপ্রদেশ সরকার ইতিমধ্যেই বিলটি পাশ করেছে।
2 Shares

Leave a comment


Powered By JAGARAN – The first daily of Tripura ::: Design & Maintained By CIS SOLUTION