চুড়াইবাড়ি ও কমলাসাগরে চার কুখ্যাত চোর গ্রেপ্তার
On 5 Dec, 2018 At 02:52 AM | Categorized As Tripura | With 0 Comments

নিজস্ব প্রতিনিধি, চুরাইবাড়ি/কমলাসাগর, ৪ ডিসেম্বর৷৷ চুরাইবাড়ি পুলিশের হাতে আটক দুই কুখ্যাত চোর৷ দীর্ঘদিন ধরেই বাড়িসহ গোটা উত্তর জেলাতে একের পর এক চুরি ডাকাতি অপহরণ প্রভৃতি সমাজবিরোধীদের সঙ্গে জড়িত দুই কুখ্যাত চোরকে আটক করতে সক্ষম হয়েছে চুরাইবাড়ি থানার পুলিশ৷ কবির হোসেন (২৩) পিতা হেকিম আলী বাড়ি উত্তর বাড়ি পঞ্চায়েতের ৪নং ওয়ার্ডে, অপরজন নাজিম উদ্দিন (২০) একই পঞ্চায়েতের ৫নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা পিতা কুটুচান্দ মিয়া৷ মাত্র ২৩ বছর বয়সে কবির হোসেন ধর্ষণ, অপহরণ ও চুরি এই তিনটি ঘটনায় জড়িত হয়ে চুরাইবাড়ি থানায় পৃথক পৃথকভাবে তিনটি মামলা রয়েছে৷ প্রথমে চলতি বছরের এপ্রিল মাসে ৩ তারিখ নাবালিকা মেয়েকে জোর করে অপহরণ ও ধর্ষণ মামলায় জড়িত হয়৷ দুই কুখ্যাত চোর ওই ঘটনার পর পালিয়ে যায়৷ অনেক দিন পালিয়ে বেড়ানোর পর অবশেষে বাড়িতে ফিরে আসে৷ কবির হোসেনের সঙ্গে আরেক চোর চুলে বাড়িতে পরপর তিনটি বাড়িতে হানা দিয়ে স্বর্ণালঙ্কারসহ মোবাইল ফ্রিজ নগদ টাকা হাতিয়ে নিয়ে পালিয়ে যায়৷ তখন অবশও্য তার সঙ্গে চ্যাট থাকা চটিকে গভীর রাতে এলাকাবাসী ধরে উত্তম মধ্যম দিয়ে পুলিশের হাতে তুলে দেন৷
এদিকে, মধুপুর থানাধীন কৈয়াডেপা এলাকার সোমবার রাত ২টা নাগাদ এলাকাবাসীর হাতে আটক হয় দুই গরুচোর৷ জানা যায়, ধৃত গরুচোর আবদুল মান্নান (৪৬) ও এমরান হোসেন (৩৮) সোমবার রাতে কৈয়াডেপা এলাকার শিবু দাসগুপ্তের বাড়ীতে গরু চুরি করে যাওয়ার পথে আটক করে এলাকাবাসী৷ শিবু দাস গুপ্তের বাড়িতে যখন গরু চুরি করতে যায় তখন শব্দ পেয়ে বাড়ির মালিক ঘরের দরজা খুলে বেড়োতেই চোরের দল গরু ছেড়ে দিয়ে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে৷ পাশের বাড়ির লোকজন মালিকের চিৎকার শুনে পাড়ার লোকজনকে নিয়ে চোরদের ধাওয়া করতেই আটক হয় দুই চোর৷ মঙ্গলবার সকালে মধুপুর থানার পুলিশ কৈয়াডেপা এলাকা থেকে ধৃত দুই চোরকে মধুপুর থানায় নিয়ে আসে৷ এলাকাতে প্রায়দিন সীমান্ত কাটা তারের বেড়া কেটে গরু পাচার করা হয়৷ কিন্তু আসল পাচারকারীরা পুলিশের জালে আসেনি৷

Leave a comment


Powered By JAGARAN – The first daily of Tripura ::: Design & Maintained By CIS SOLUTION