বুলন্দশহরের হিংসার পেছনে কংগ্রেসের হাত রয়েছে : সুব্রাহ্মনিয়াম স্বামী
On 4 Dec, 2018 At 09:19 PM | Categorized As Nation | With 0 Comments
7 Shares
নয়াদিল্লি, ৪ ডিসেম্বর (হি.স.): বুলন্দশহরের হিংসার ঘটনার পেছনে কংগ্রেসের হাত রয়েছে। যারা জেরে এক পুলিশ আধিকারিক-সহ দুইজনের মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার এমনই চাঞ্চল্যকর দাবি করলেন বর্ষীয়ান বিজেপি নেতা সুব্রাহ্মনিয়াম স্বামী। সোমবার সকালে বুলন্দশহরের স্যানা মকুমা এলাকায় মাহু গ্রাম সংলগ্ন জঙ্গলে কিছু গোরুর দেহাংশ ঘিরে হিংসার উত্তেজনা ছড়ায়। হিংসার জেরে এক পুলিশ ইনস্পেক্টরের মৃত্যু হয়। পাশাপাশি বছর ২১-এর এক গ্রামবাসী মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার এই প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে সুব্রাহ্মনিয়াম স্বামী বলেন, এই হিংসার পেছনে কিছু দুষ্কৃতীদের হাত রয়েছে। উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের সরকারকে বদনাম করার জন্য কংগ্রেস কর্মীরা এমন কাজ করেছে কিনা তা আমরা খতিয়ে দেখছি। বুলন্দশহরের হিংসার ঘটনায় মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের বিরুদ্ধে নিন্দায় মুখর হয়ে কংগ্রেসের তরফে বলা হয় যে, উত্তরপ্রদেশ জ্বলছে আর মুখ্যমন্ত্রী নির্বাচনী প্রচারে ব্যস্ত। এর পাল্টা সুব্রাহ্মনিয়াম স্বামী বলেন, ১৯৮৪-র শিখবিরোধী দাঙ্গায় ভারত কি পুড়ছিল না। ১৯৮৪-র শিখবিরোধী দাঙ্গার থেকে ভয়াবহ জিনিস আরও কি হতে পারে? জরুরি অবস্থার সময় কোনও বিচার ছাড়া নিরীহ মানুষদের জেলে ঢোকানোর কথা কংগ্রেস কি ভুলে গিয়েছে।
উল্লেখ্য, সোমবার সকালে বুলন্দশহরের স্যানা মকুমা এলাকায় মাহু গ্রাম সংলগ্ন জঙ্গলে কিছু গোরুর দেহাংশ মেলে| এরপরই গুজব রটে যায় গোরুগুলিকে হত্যা করা হয়েছে| ট্র্যাক্টরে করে সেই দেহাংশ এনে চিঙ্গারওয়াথি পুলিশ ফাঁড়ির সামনে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন কিছু মানুষজন| পুলিশের বিরুদ্ধে শ্লোগান দিতে থাকেন তাঁরা| বিক্ষোভকারীদের একাংশ বুলন্দশহর হাইওয়ে আটকে দেওয়ার চেষ্টা করলে আসরে নামে পুলিশ| ঘটনাস্থলে পৌঁছন এসডিএম অবিনাশকুমার মৌর্য্য| তারপরই হিংসাত্মক হয়ে ওঠে বিক্ষোভ| প্রশাসনিক আধিকারিকদের ঘিরে ধরে ইট-পাথর ছোঁড়া হয়| জখম হন বেশ কয়েকজন পুলিশ কর্মী| তাঁদের মধ্যে ছিলেন স্টেশন হাউস অফিসার সুবোধ কুমার সিং| সেই সময় পুলিশ পাল্টা গুলি চালালে মৃত্যু হয় সুমিত নামে এক যুবকের| এরপরই বিক্ষোভকারীরা গাড়ি ঘিরে ধরে পাথর মারতে শুরু করে| প্রাণে বাঁচতে পালিয়ে যান অন্যান্য পুলিশ কর্মীরা| পরে পুলিশ ইন্সপেক্টর সুবোধ কুমার সিংকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে চিকিত্সকরা তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।
7 Shares

Leave a comment


Powered By JAGARAN – The first daily of Tripura ::: Design & Maintained By CIS SOLUTION