স্বাস্থ্য পরিসেবাকে ঢেলে সাজানোর উদ্যোগ নিয়েছে রাজ্য সরকার ঃ মুখ্যমন্ত্রী
On 13 Aug, 2018 At 08:43 AM | Categorized As Main Slideshow | With 0 Comments

নিজস্ব প্রতিনিধি, আগরতলা, ১২ আগস্ট ৷৷ মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব প্রতিটি এলাকায় বীর সন্তান গড়ে তোলার জন্য রাজ্যবাসীর প্রতি আহ্বান

রবিবার আগরতলায় একটি ক্লাবের স্বেচ্ছায় রক্তদান শিবিরে মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব বক্তব্য রাখেন৷ ছবি নিজস্ব৷

জানিয়েছেন৷ তিনি বলেন, বর্তমানে রাজ্যে নেশার প্রবমতা কমছে৷ ছেলেরা ফুটবল, কাবাডি খেললে, সুস্থ চিন্তা করলে নেশার দিকে ঝোঁক কমবে৷ তারা দেশ প্রেমে উদ্বুদ্ধ হবে৷ দেশ এগিয়ে যাবে৷ আজ শিবনগরস্থিত লোটাস ক্লাব প্রাঙ্গণে আয়োজিত স্বেচ্ছা রক্তদান শিবিরের উদ্বোদন করে মুখ্যমন্ত্রী এই কথাগুলি বলেন৷ মুখ্যমন্ত্রী শ্রী দেব বলেন, ছেলেরা মদ, জুয়া বা অন্যান্য নেশায় আসক্ত হয়ে গেলে মায়ের দুঃশ্চিন্তার সীমা থাকে না৷ আর যে দেশে নারীর সম্মান নেই সে দেশ শ্রেষ্ঠ হতে পারেনা৷ তাই কেবল স্বেচ্ছায় রক্তদান নয়, সুস্থ সমাজ গড়তে এবং সারা রাজ্যে স্বাস্থ্য পরিষেবা পৌঁছে দিতে সরকার প্রয়াস নিয়েছে৷ তিনি বলেন, আজ রাজ্যে যেভাবে নেশা বিরোধী প্রচার ও অভিযান চলছে ঠিক সেভাবে আগেও রাজ্যে স্বাস্থ্য বিষয়ে প্রচার এবং উদ্যোগ গ্রহণ করা হলে রোগীকে বাড়ি, জমি বিক্রয় করে কলকাতা, চেন্নাই, দিল্লি ছুটতে হতোনা৷ রাজ্য সরকার রাজ্যে স্বাস্থ্য পরিষেবাকে ঢেলে সাজানোর উদ্যোগ নিয়েছে৷ উদ্যোগ নিয়েছে সর্বত্র ই-হেলথ ব্যবস্থা চালু করার৷ ইতিমধ্যে ৮ জেলায় স্বাস্থ্য বিষয়ক ওয়েবসাইট চালু করা হয়েছে৷ মুখ্যমন্ত্রী বলেন, গতকাল গুয়াহাটিতে কেন্দ্রীয় তথ্য ও প্রযুক্তি মন্ত্রী রবি শংকর প্রসাদ ডিজিট্যাল নর্থ ইস্ট ২০২২ এর ভিশন ডকুমেন্ট প্রকাশ করেন৷ তিনি ঘোষণা দেন, উত্তর-পূর্বের ছয়টি মেডিক্যাল কলেজে ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য ডিজিটাল ক্লাস রুম হবে৷ এর মধ্যে আগরতলা গভঃ মেডিক্যাল কলেজও রয়েছে৷ মুখ্যমন্ত্রী বলেন, অনুষ্ঠানে মাই গভঃ ত্রিপুরা শীর্ষক ওয়েবপোর্টালেরও সূচনা হয়৷ তিনি বলেন, আমাদের রাজ্যের ২০০০ জন ছেলে-মেয়েকে আসামে জি এন এম কোর্সে প্রশিক্ষণ এবং প্রশিক্ষণের পর কর্মসংস্থানের জন্য আবেদন জানালে আসামের মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সনোয়াল এই আবেদনে রাজি হয়েছেন৷ মুখ্যমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি শুধু কথায় নয়, সবকা সাথ সবকা বিকাশ কর্মসূচি কাজে পরিণত করার উদ্যোগ নিয়েছেন৷ আমরা আয়ুস্মান ভারত যোজনায় রাজ্যে ৫ লক্ষ ২০ হাজার পরিবারকে যুক্ত করার প্রয়াস নিয়েছি৷ অনুষ্ঠানে এছাড়াও বক্তব্য রাখেন ত্রিপুরা বিধানসভার অধ্যক্ষ রেবতী মোহন দাস, বিধায়ক আশীষ কুমার সাহা, সমাজসেবী রাজীব ভট্টাচার্য ও দীপক কর৷ স্বাগত ভাষণ দেন সমাজসেবী হরেন্দ্র দাস৷ অনুষ্ঠানে লোটাস ক্লাবের সভাপতি প্রাণতোষ দাস ১০,০০০ টাকা ও প্রয়াত নেতা মনমোহন দাসের কন্যা সঞ্চিতা দাস ১০০০১ টাকার চেক মুখ্যমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিলের উদ্দেশ্যে মুখ্যমন্ত্রীর হাতে তুলে দেন৷ শিবিরে ৪৮ জন ক্লাব সদস্য  ও সদস্যা স্বেচ্ছায় রক্তদান করেন৷ এর মধ্যে ১৪ জন মহিলা রয়েছেন৷ সভাপতিত্ব করেন লোটাস ক্লাবের সভাপতি প্রাণতোষ দাস৷

Leave a comment


Powered By JAGARAN – The first daily of Tripura ::: Design & Maintained By CIS SOLUTION