পূর্বোত্তরে বিমানবন্দর সম্প্রসারণ আধুনিকিকরণে তিন বছরের জন্য বরাদ্দ আড়াই হাজার কোটি টাকা
On 16 Dec, 2017 At 09:40 AM | Categorized As Main Slideshow | With 0 Comments

নিজস্ব প্রতিনিধি, আগরতলা, ১৫ ডিসেম্বর৷৷ বিমান যোগাযোগে পূর্বোত্তরকে আরো এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার লক্ষ্যেই শুক্রবার রাজ্যে আসেন এয়ারপোর্ট অথরিটি অব ইন্ডিয়ার চেয়ারম্যান গুরুপ্রসাদ মহাপাত্র৷ আগামী তিন বছরে পূর্বোত্তরে রাজ্যগুলিতে বিমানবন্দর সম্প্রসারণ ও আধুনিকিকরণে বরাদ্দ হয়েছে আড়াই হাজার কোটি টাকা৷ শ্রী মহাপাত্র আজ সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে একথা জানিয়েছেন৷ পাশাপাশি জানান, কৈলাসহর বিমানবন্দরে ট্রুজেট বিমান সংস্থা পরিষেবা দেবে৷ ঐ বিমান বন্দরটির ফিনান্সিয়াল বিড গতকাল খুলেছে বলে তিনি জানিয়েছেন৷
এদিন সকালে রাজ্যে তিনি এসে আগরতলা বিমানবন্দরের টার্মিনাল বিল্ডিং পরিদর্শন করেছেন৷ এরপর মহাকরণে রাজ্যের মুখ্যসচিব সঞ্জিব রঞ্জনের সাথে তিনি বৈঠক করেছেন৷ সূত্রের খবর, বৈঠকে তিনি কৈলাসহর বিমানবন্দরটিকে সম্প্রসারণের জন্য দু-বছর আগে চাওয়া ৭৫ একর জমি অধিগ্রহণের স্থিতি সম্পর্কে মুখ্য সচিবের কাছে জানতে চেয়েছেন৷ ঐ বৈঠকে আগরতলা বিমানবন্দরকে আধুনিকি করণ এবং কৈলাসহর বিমানবন্দরকে সংস্কারের পর ছোট বিমান পরিষেবা চালু করার বিষয়ে আলোচনা হয়েছে৷
বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে শ্রী মহাপাত্র জানান, আঞ্চলিক বিমান পরিষেবার পরিসর বৃদ্ধির উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে৷ কেন্দ্রীয় সরকারের ঘোষিত উড়ান স্কীমে নর্থ-ইষ্ট কানেক্টিভিটির বিমান পরিষেবা কৈলাসহর বিমানবন্দরকে ব্যাবহার করে চালু করা হবে৷ উড়ান স্কীমের অন্তর্গত ছোট শহরকে যুক্ত করা হবে৷ তিনি জানান, কৈলাসহর বিমানবন্দরে ট্রুজেট বিমান সংস্থা পরিষেবা দেবে৷ কৈলাসহর বিমানবন্দরের জন্য ফিনান্সিয়াল বিড গতকাল খুলেছে৷ তাতে দেশের বিমান মানচিত্রে কৈলাসহর বিমানবন্দরও যুক্ত হয়েছে৷ তিনি আরও জানান, আগরতলা বিমানবন্দরকে আধুনিকিকরণের ৫০০ কোটি টাকার প্রকল্প শুরু হয়েছে৷ তিনি জানান, আগরতলা বিমানবন্দর দিয়ে বহু যাত্রী যাতায়াত করছেন৷ গত অর্থবছরে আগরতলা বিমানবন্দর দিয়ে ১৩ লক্ষ যাত্রী যাতায়াত করেছেন৷ আগামী দিনে এই বিমানবন্দরের প্যাসেঞ্জার ট্রাফিক আরো বাড়বে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেছেন৷ শ্রী মহাপাত্র জানান, বিমান সংস্থা কৈলাসহর বিমানবন্দরে পরিষেবা দেওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করার আগেই ঐ বিমানবন্দরটি নতুন করে প্রস্তুত করতে হবে৷
এয়ারপোর্ট অথরিটি অব ইন্ডিয়ার চেয়ারম্যান জানিয়েছেন, আগামী তিন বছরে পূর্বোত্তরের রাজ্যগুলিতে বিমান পরিষেবার পরিসর বৃদ্ধির লক্ষ্যে আড়াই হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ করেছে কেন্দ্রীয় সরকার৷ ফলে, আগরতলা বিমানবন্দর সহ পূর্বোত্তরের রাজ্যগুলির বিমানবন্দরগুলিকে ঢেলে সাঁজানো হবে৷ তাঁর মতে, পূর্বোত্তরে রাজ্যগুলির বিমান যোগাযোগ আরো উন্নত করার প্রয়োজনিয়তা রয়েছে৷ সেই লক্ষ্যে কেন্দ্রীয় সরকার উদ্যোগ গ্রহণ করেছে৷
এদিন তিনি রাজ্য সফরে এসে আগরতলা রাজ্য অতিথিশালায় পূর্বোত্তরের রাজ্যগুলির বিমানবন্দরের পর্যালোচনা বৈঠক করেছেন৷ গুয়াহাটি, আগরতলা, ইম্ফল এবং শিলচড় বিমানবন্দরের বিষয়েও তিনি পর্যালোচনা করেছেন৷ এরই সাথে ডিব্রুগড়, ডিমাপুর, শিলং এবং পূর্বোত্তরের আঞ্চলিক পর্যালোচনা বৈঠকও এদিন তিনি করেছেন৷

Leave a comment


Powered By JAGARAN – The first daily of Tripura ::: Design & Maintained By CIS SOLUTION