মোর্চার বিক্ষোভে অগ্নিগর্ভ পাহাড়, পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে সেনাবাহিনীর সাহায্য চাইল রাজ্য
On 8 Jun, 2017 At 11:50 PM | Categorized As Nation | With 0 Comments

দার্জিলিং, ৮ জুন (হি.স.) : ভরা পর‌্যটনের মরশুমে অগ্নিগর্ভ হয়ে উঠল পাহাড়| গোর্খা জনমুক্তির মোর্চার বিক্ষোভে অগ্নিগর্ভ পরিস্থিতি পাহাড়ে| আগুন লাগিয়ে দেওয়া হয় সরকারি গাড়িতে| পাহাড়ে অগ্নিগর্ভ পরিস্থিতি সামাল দিতে কেন্দ্রের কাছে সেনাবাহিনীর সাহায্য চাইল রাজ্য সরকার| নবান্ন সূত্রে খবর, এবিষয়ে সম্মতি দিয়েছে কেন্দ্র| এদিকে, অগ্নিগর্ভ পরিস্থিতির মাঝেই পাহাড়ে ১২ ঘণ্টার বনধের ডাক দিয়েছে গোর্খা জনমুক্তি মোর্চা| পুলিশ বাহিনী, ও আধা সামরিক বাহিনী মোতায়েন রয়েছে|
দীর্ঘদিন পর বৃহস্পতিবার পাহাড়ে মন্ত্রিসভার বৈঠক করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়| পাশাপাশি এদিন সকাল থেকেই দার্জিলিংয়ে মিছিল শুরু করেন মোর্চা সমর্থকরা | দার্জিলিংয়ের বিভিন্ন জায়গায় বিক্ষোভ দেখাচ্ছিল মোর্চা সমর্থকরা| মিছিলের জেরে যানজটে স্তব্ধ হয়ে যায় পাহাড়ের বিভিন্ন রাস্তা | ফলে, দার্জিলিংয়ে পৌঁছাতে বেগ পেতে হয় মন্ত্রীদের কনভয়কে| এদিকে এদিন বাংলা ভাষা বাধ্যতামূলক সংক্রান্ত ইসু্যতে ভানুভবনের সামনে মোর্চার তরফে অনশন ঘিরে উত্তেজনা ছড়ায়| মন্ত্রিসভার বৈঠক শেষ হওয়ার পরেই ভানুভবনে মোর্চা সমর্থকরা জমায়েত হতে শুরু করে| দেখাতে থাকে বিক্ষোভ| মোর্চা সমর্থকরা বোমাবাজি শুরু করেন বলে অভিযোগ| শুধু তাই নয়, ভানুভবনের সামনে পুলিশের গাড়ি ভাঙচুর করে| শুরু হয় ইটবৃষ্টি|
খবর পেয়ে পুলিশ এসে তাদের নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করে| সেইসময় মোর্চা সমর্থকরা পুলিশের সঙ্গে বচসায় জড়িয়ে পড়ে| বিক্ষুব্ধ মোর্চা সমর্থকরা এরপর আচমকা একাধিক গাড়িতে ভাঙচুর শুরু করে দেয়| পুলিশ বাধা দিলে শুরু হয়ে যায় খণ্ডযুদ্ধ| পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট, পাথর ছোঁড়া শুরু হয়| পরিস্থিতি সামাল দিতে লাঠিচার্জ করে পুলিশও| কিন্তু, তাতেও না দমে একের পর এক পুলিশের গাড়িতে আগুন লাগাতে শুরু করে মোর্চা সমর্থকরা| ১২টিরও বেশি সরকারি গাড়ি জ্বালিয়ে দেওয়া হয়| আগুন লাগানো হয় পুলিশ কিয়স্কেও| দার্জিলিঙের চকবাজারে একটি দাঁড়িয়ে থাকা সরকারি বাসে আগুন ধরিয়ে দেওয়া হয়| চরম উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়লে পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ আনতে কাঁদানে গ্যাস ছোঁড়ে|
অভিযোগ, এরপরেই লাঠিচার্জ শুরু করে পুলিশ| শূন্যে গুলিও চালানো হয়| গন্ডগোলের জেরে কার‌্যত হতভম্ব হয়ে পড়েন পর‌্যটকরা| আতঙ্কে তাঁরা ম্যাল চত্বর ফাঁকা করে দেন| আতঙ্কে হোটেলগুলিতে ঝাঁপ বন্ধ করে দিচ্ছেন মালিকরা | অন্যদিকে, কালিম্পংয়ে দোকানপাট বন্ধ করিয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে মোর্চার বিরুদ্ধে | উত্তেজনা ছড়িয়েছে কার্শিয়ং ও কালিম্পং ও মিরিকে| এখনও পর‌্যন্ত ৫৫ জন পুলিশ কর্মী আহত হয়েছেন বলে খবর | এদের মধ্যে একজন মহিলা ডিএসপি আঘাত গুরুতর | এক কনস্টেবলের চোখে ইটের আঘাত লেগেছে | আহত হয়েছেন রাজেশ যাদব| শেষমেশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে সেনা ডাকল রাজ্য| এরপরই আগামীকাল ১২ ঘন্টার পাহাড় বনধের ডাক দিয়েছে মোর্চা|
বিক্ষোভ যখন তীব্র আকার ধারণ করেছে, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সহ দলের শীর্ষ নেতামন্ত্রীরা তখন ৫০০ থেকে ৬০০ মিটার দূরত্বে রিচমন্ড হিলে ছিলেন| এদিন বিকেলে মুখ্যমন্ত্রী শীর্ষ পুলিশ আধিকারিকদের সঙ্গে রিচমন্ড হিলে জরুরি বৈঠকে বসেন| পাহাড় সফরে মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গেই আছেন রাজ্য পুলিশের ডিজি সুরজিত্ কর পুরকায়স্থ|
এদিকে মোর্চার এই বিক্ষোভের কড়া সমালোচনা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় | জানিয়েছেন, যাঁদের হাতে কোনও ইসু্য নেই তাঁরাই এরকম ধ্বংসাত্মক কাজ করে | পাহাড়ের মানুষ যা চায় তাই হবে বলে আশ্বাস দিয়েছেন তিনি | পাহাড়কে মূলস্রোতে টানার যে চেষ্টা তিনি করছেন তাতে পাহাড়ের সংখ্যাগরিষ্ঠ মানুষ সন্তুষ্ট বলেই বিশ্বাস বিভিন্ন মহলের | অনেকের দাবি, মিরিক হাত ছাড়া হওয়ার পর অস্তিত্ব রক্ষার দাবিতেই মোর্চার এই আন্দোলন |
এদিকে মোর্চার বিক্ষোভে গিয়ে পাহাড়ে আটকে পড়েছেন প্রায় হাজার দশেক পর‌্যটক | তাঁদের নিরাপদে সমতলে নামানোর ব্যবস্থা করার নির্দেশ দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী | অন্যদিকে আগামিকালের বনধ কড়া হাতে মোকাবিলা করারও সবরকম প্রস্তুতি নিচ্ছে প্রশাসন | এদিকে মুখ্যমন্ত্রীর পাহাড় নীতির সমালোচনা করেছেন সিপিএম নেতা সূর‌্যকান্ত মিশ্রও | তাঁর দাবি, কাশ্মীর নিয়ে প্রধানমন্ত্রী যে মনোভাব নিয়েছেন, পাহাড় নিয়ে মমতার মনোভাব একই | তবে আলোচনার মাধ্যমেই এ সমস্যা মিটবে বলে দাবি তাঁর|

Leave a comment


Powered By JAGARAN – The first daily of Tripura ::: Design & Maintained By CIS SOLUTION