ভারত-বাংলাদেশ সীমান্ত থেকে উদ্ধার হল ২ হাজার টাকা জালনোট
On 24 Jan, 2017 At 09:26 PM | Categorized As Prodhan Khobor | With 0 Comments

noteমালদা, ২৪ জানুয়ারি (হি.স): বৈষ্ণবনগর এলাকার ভারত-বাংলাদেশ সীমান্ত থেকে উদ্ধার হল একটি নতুন ২ হাজার টাকার জালনোট| পুরো ঘটনায় জেলা পুলিশ ও প্রশাসন রীতিমতো নড়েচড়ে বসেছে| যদিও দুই হাজার টাকার জালনোট উদ্ধারের ঘটনায় মালদা থেকে ৪৫ কিলোমিটার দূরে ভারত-বাংলাদেশ সীমান্ত এলাকা বাখরাবাদ গ্রাম পঞ্চায়েতের হঠাত্পাড়া এলাকা থেকে এক নাবালক গ্রেফতার হয়েছে | মঙ্গলবার ওই নাবালকে গ্রেফতার করেছে বৈষ্ণবনগর থানার পুলিশ| এদিনই ওই নাবালকে মালদা জুভেনাইল কোর্টের মাধ্যমে ১০ দিনের পুলিশি হেফাজতে চাওয়া হয়েছে| ধৃত ওই নাবালকের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট থানার পুলিশ ৪৮৯-বি (জালনোট ব্যবহার করা), ৪৮৯-সি (জালনোট পাওয়া গিয়েছে) এবং ১২০-বি (অপরাধমূলক কাজ) এই তিন ধারায় মামলা রুজু করেছে|
পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ধৃত নাবালকের নাম জিয়াউল শেখ (১৫)| বাখরাবাদ গ্রাম পঞ্চায়েতের হঠাত্পাড়া গ্রামের ওই বালক সোমবার দুপুরে স্থানীয় এক মুদির দোকানে গিয়েছিল চাল কিনতে| তার কাছেই ছিল দুই হাজার টাকার জালনোটটি| দোকানি সেই টাকাটি দেখে সন্দেহ হয়| তখনই সে পুলিশকে খবর দেয়| এরপরই বৈষ্ণবনগর থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে ওই নাবালককে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করে নিয়ে যায়| পাশাপাশি দুই হাজার টাকার ওই নকল নোটটিও পুলিশ উদ্ধার করে| সোমবার রাতভর ধৃত জিয়াউলকে জিজ্ঞাসাবাদের পর মঙ্গলবার তাকে আদালতে তোলা হয়|
স্থানীয় কিছু মানুষদের সঙ্গে কথা বলে পুলিশ জানতে পেরেছে, ধৃত জিয়াউল শেখের বাবা বাত্সু শেখ পেশায় দিনমজুর| তাদের পরিবারে ছয় ভাই রয়েছে| জিয়াউল বাড়ির ছোট| সেও দিনমজুরি করে| গত ১০ দিন আগেও জিয়াউল একটি নতুন দুই হাজার টাকার জালনোট নিয়ে স্থানীয় এক মুদির দোকানে গিয়েছিল কেনাকেটা করতে| কিন্তু তখনও স্থানীয় দোকানিদের সন্দেহ হয় এবং বিষয়টি জানাজানি হওয়ার পরই ওই নকল নোটটি পুড়িয়ে দেওয়া হয়| কিন্তু এই ঘটনার পর আবারও সোমবার দুপুরে জিয়াউল নতুন দুই হাজার টাকার জালনোট নিয়ে ফের স্থানীয় মুদির দোকানে চাল কিনতে যায়| এবার আর ওই দোকানদার কোনওরকম ঝুঁকি না নিয়ে বিষয়টি পুলিশকে জানিয়ে দেয়|
পুলিশ জানিয়েছে, ধৃত নাবালককে বাড়ি থেকে দুই কিলোমিটার দূরে রয়েছে ভারত-বাংলাদেশের সবদলপুর সীমান্ত| হঠাত্পাড়া গ্রামে প্রায় ১০০ পরিবার রয়েছে| প্রত্যেকেই প্রায় দিনমজুর| স্থানীয় গ্রামবাসীদের বক্তব্য, বাত্সু শেখ এবং তার ছেলেরা ভিনরাজ্যে শ্রমিকের কাজ করে| একসময় ভীষণই গরিব ছিল তারা| এখন ওদের পাকা দোতালা বাড়ি| বাড়িতে মোটর বাইক থেকে মোবাইল সবই এসেছে| হঠাত্ করে এত উন্নতি কিভাবে হল ওই হতদরিদ্র পরিবারের তা নিয়ে স্থানীয় গ্রামবাসীদের ভাবিয়ে তুলেছে| তবে ওই পরিবারটি যে জালনোট পাচার চক্রের সঙ্গে আগে থেকেই যুক্ত রয়েছে তা সোমবারের নতুন নোট উদ্ধারের ঘটনায় পুলিশ প্রাথমিকভাবে পরিষ্কার হয়ে গিয়েছে|
বাখরাবাদ গ্রাম পঞ্চায়েতের কংগ্রেস দলের প্রধান ধনঞ্জয় মন্ডল বলেন, জিয়াউল হকের কাছ থেকে নতুন দুই হাজার টাকার জালনোট পাওয়া গিয়েছে| এটা শুনে আমরাও বিস্মিত হয়ে পড়েছি কিভাবে ওর কাছে এই টাকা এল তা ভেবেই অবাক হয়ে যাচ্ছি| এই ধরনের ঘটনাকে কখনও প্রশ্রয় দেওয়া যাবে না| এই ধরনের অপরাধের বিরুদ্ধে পুলিশ কঠোর ব্যবস্থা নিক সেটা আমরাও চাই| তবে হতদরিদ্র ওই পরিবারটিতে কয়েক মাসের মধ্যে পরিবর্তন এসেছে তা অনেকের মুখে শুনেছিলাম| ওদের পরিবারের এই উন্নতির পিছনে এরকম অপরাধচক্র জড়িত রয়েছে তা ঘুণাক্ষরেও টের পাওয়া যায় নি|
অতিরিক্ত পুলিশ সুপার দীপক সরকার (গ্রামীণ) জানিয়েছেন, একটি ২ হাজার টাকার নকল নোট সহ জিয়াউল শেক নামে এক নাবালককে গ্রেফতার করা হয়েছে| নকল নোটটি মুদির দোকানে চাল কেনার জন্য এসেছিল| তখনই দোকানদারের সন্দেহ হয় এবং পুলিশকে খবর দেয়| উদ্ধার হওয়া দুই হাজার টাকার নকল নোটটি অতি নিম্নমানের| ছেলেটি পুলিশকে জানিয়েছে তার দাদার কাছ থেকে সে ওই নোটটি পেয়েছিল| ধৃতের পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা এলাকা থেকে পালিয়ে গিয়েছে| তাদেরও খোঁজ চালাচ্ছে বৈষ্ণবনগর থানার পুলিশ|

Leave a comment


Powered By JAGARAN – The first daily of Tripura ::: Design & Maintained By CIS SOLUTION