ব্যাংকিংয়ে প্রযু িক্তর ছয়লাপ
On 13 Apr, 2013 At 05:19 PM | Categorized As Technology | With 1 Comment

যে কোনও সভ্য ও উন্নত দেশের আ ির্থক পরিকাঠামোর সূল  স্তম্ভ হল সেই দেশের ব্যাংকিং পরিষেবা৷ শুধু বাণিজ্যিক জগতেই নয়, নিত্য এবং প্রাত্যহিক জীবনযাত্রাতেও প্রয়োজন ব্যাংকিং পরিষেবা৷ এই পরিষেবা মূল যন্ত্র হল চেক, যার মাধ্যমে টাকা তোলা বা কাউকে টাকা দেওয়ার কাজটি সম্পন্ন করা হয়৷ সর্বত্র ব্যবহৃত কাগজের চেক আমাদের সকলের কাছে অতি পরিচিত৷ ভারতীয় ব্যাংকিং ব্যবস্থায় নয়ের দশকের প্রথম দিকে এমআইসিআর (ম্যাগনেটিক ইংক কারেকশন রিকোগনিশন) চেকের প্রচলন হয়৷ এইরকম একটি চেক নিয়ে লক্ষ্য করলে দেখা যাবে যে, চেকের নিচের অংশে একটা লম্বা সাদা জায়গা আছে, যেখানে লেখা থাকে পর্যায়ক্রমে চেক নম্বর, চেকের রুটিন নম্বর, কোন ধরনের অ্যাকাউন্টের চেক এবং সবশেষে তার কোড নম্বর৷ একটু স্পষ্ট করে বললে বিষয়টি সহজবোধ্য হবে৷ চেকের মধ্যে যে নম্বর থাকে, সেটি সবসময়ই ছয় সংখ্যার হয়৷ নম্বরহীন সংখ্যাটিকে শূন্য দিয়ে পূরণ করা হয়৷ এরপর রুটিন নম্বর অর্থাত্ চেকটি কোন রাজ্যের, কোন ব্যাংকের ও কোন শাখার, তা নয়টি সংখ্যার কোড মাধ্যমে থাকে৷ এরপরে থাকে চেকটি কী ধরনের অ্যাকাউন্টের, তার নম্বর৷ এইসব সংখ্যাগুলি পড়তে পারে এমআইসিআর যন্ত্র এবং তার সাহায্যেই কয়েক ঘন্টার মধ্যে লক্ষ লক্ষ চেক বিভিন্ন ভাগে ভাগ হয়ে, ক্লিয়ারিং হাউসের মাধ্যমে পৌঁ ছে যায় ব্যাংকের বিভিন্ন শাখায়৷

Displaying 1 Comments
Have Your Say
  1. Nice post. I learn something new and challenging on sites I stumbleupon every day.
    It’s always helpful to read content from other writers and use a little something from other websites.

Leave a comment


Powered By JAGARAN – The first daily of Tripura ::: Design & Maintained By CIS SOLUTION